সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

শিশুর মাথা অস্বাভাবিক মোটা?

প্রতি ১০ হাজার নবজাতকের মধ্যে দুই থেকে পাঁচজন এই রোগ নিয়ে জন্মাতে পারে
পথেঘাটে প্রায়ই শরীরের তুলনায় অনেক বড় মাথাবিশিষ্ট শিশু দেখা যায়। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি যে সুচিকিৎসা থাকা সত্ত্বেও এ ধরনের শিশুকে নিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি ও ব্যবসা করতে দেখা যায় আমাদের দেশে; রয়েছে নানা কুসংস্কারও। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় এই সমস্যার নাম হাইড্রোকেফালাস। ‘হাইড্রো’ অর্থ পানি আর ‘কেফালাস’ হলো মাথা। মস্তিষ্কে পানি জমে গেলে এই সমস্যা দেখা দেয়। আর প্রতি ১০ হাজার নবজাতকের মধ্যে দুই থেকে পাঁচজন এই রোগ নিয়ে জন্মাতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

নাক বন্ধ হলে..

coldএই সময়ে হঠাৎ অনুভব করলেন, নাকের ভেতরটা বন্ধ হয়ে আছে। একটু পর কথা বলার সময়ও অনুভব করলেন, নাকে কথা বেঁধে আসছে। শীতের সময় এমন সমস্যা হতেই পারে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হুসনে কমর ওসমানী বলেন, ভাইরাসজনিত কারণে এ সময়ে নাক বন্ধ হতে পারে। এ ছাড়া শুষ্ক আবহাওয়ায় ধুলাবালুর কারণে অ্যালার্জি হলে নাক বন্ধ হওয়ার মতো সমস্যা হতে পারে। নাক বন্ধ হওয়ার পাশাপাশি ঘ্রাণ নিতে অসুবিধা হওয়া, মাথাব্যথা, হালকা সর্দি, জ্বর বা কাশিও থাকতে পারে। এ ছাড়া কথা বলার সময় অসুবিধা হতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

মুখ থেকে মুছে যাক বয়সের ছাপ

সৌন্দর্যপিপাসু সুন্দরী ললনাদের ক্ষেত্রে মুখের দাগ তাদের হতাশার অন্যতম একটি কারণ। এ ক্ষেত্রে তারা অবিরাম ছুটে চলেন ডাক্তারের পর ডাক্তার। খরচে থাকে না তাদের কোনো বাধা, শুধু চাওয়া  এ অবস্থা থেকে মুক্তি। কিন্তু সব সময় তা সফল না হওয়ায় বাড়তে থাকে তাদের হতাশা।

বিস্তারিত পড়ুন…

পেশাসংশ্লিষ্ট অ্যাজমা রোগ

পেশাসংশ্লিষ্ট অ্যাজমা বলতে আমরা ফুসফুসের সেসব অসুখ বুঝে থাকি যেগুলোর উৎপত্তি হয় কর্মস্থলের ধোঁয়া, ধুলো, গ্যাস বা অন্যান্য ক্ষতিকর উপাদান নিঃশ্বাসের সাথে গ্রহণ করার মাধ্যমে। হতে পারে কর্মস্থলে গিয়ে কোনো কর্মী জীবনে প্রথম অ্যাজমাতে আক্রান্ত হন বা এমনও হতে পারে যে, তার কৈশোরকালে অ্যাজমা ছিল, পরবর্তী সময়ে তিনি সুস্থ ছিলেন এবং কর্মস্থলে এসে আবার আক্রান্ত হলেন। আবার কেউ কেউ মৃদু অ্যাজমার রোগী থাকেন কিন্তু কর্মস্থলে এসে তার অ্যাজমা মারাত্মক রূপ ধারণ করে।

বিস্তারিত পড়ুন…

ব্রেস্ট ক্যান্সার : সহজ প্রতিরোধ ব্যবস্থা

breast-cancerব্রেস্ট ক্যান্সার বা স্তন ক্যান্সার পাশ্চাত্যে (৩৫-৫৫) অতি সাধারণ মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন।
প্রতি বছর এ রোগের প্রকোপ ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। লিখেছেন ডা: জি এম ফারুক
ফুসফুসের ক্যান্সারের পরেই ব্রেস্ট ক্যান্সার এখন মহিলাদের মৃত্যুর প্রধান কারণ। এ কারণেই বিশ্বব্যাপী অক্টোবর মাসকে ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতার মাস হিসেবে পালন করা হয়। বিশেষভাবে শিল্পসমৃদ্ধ পাশ্চাত্য দেশগুলোতেই ব্রেস্ট ক্যান্সার বেশি দেখা যায়। এ জন্য ব্রেস্ট ক্যান্সারকে Disease of  Civilization বলা হয়ে থাকে।

বিস্তারিত পড়ুন…

পিঠব্যথায় করণীয়

পিঠব্যথা সমস্যা যে কারোর জন্যই খুব যন্ত্রণাদায়ক অবস্থা। পিঠব্যথা সম্বন্ধে জানতে হলে প্রথমে মেরুদণ্ড সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। মেরুদণ্ড একটি মাত্র হাড় নয়, ৩৩টি হাড়ের সমন্বয়ে এটা তৈরী। প্রতিটি হাড় কার্টিলেজের কুশন দিয়ে পৃথক রয়েছে। এই কুশনকে বলে ডিস্ক। এর কারণে মেরুদণ্ড সামেন পেছনে বাঁকানো সম্ভব। মেরুদণ্ড নিখুঁতভাবে সোজাসুজি নয়। পাশ থেকে দেখলে এর স্বাভাবিক আকৃতি হলো ইংরেজি অক্ষর ঝ (এস)-এর মতো।  পিঠব্যথা প্রতিরোধের প্রধান শর্ত হলো- যেকোনো কাজ করার সময় মেরুদণ্ডের এই আকৃতি অুণœ রাখা।

বিস্তারিত পড়ুন…

গর্ভাবস্থায় শারীরিক সমস্যা

বমি সাধারণত সকালের দিকেই হয়। বিশেষত সকালে বিছানা থেকে ওঠার পরপরই এ রকম হয়। প্রথম গর্ভাবস্থায় সাধারণত এটা বেশি হয়। এটা সাধারণত মাসিক বন্ধের মাস অথবা তার পরের মাস থেকে শুরু হয়। প্রথম তিন মাসের পর এই কষ্ট ক্রমেই কমে যায়। এই উপসর্গ সাধারণত মায়ের শরীরের খুব বেশি ক্ষতি করে না। তবে খাওয়া কমে যাওয়ার জন্য দুর্বলতা দেখা দিতে পারে। তাই ভাবী মাকে বোঝানো দরকার যে সন্তান ধারণের জন্য এইটুকু কষ্ট তাকে সহ্য করতে হবে। এ সময় ভাবী মায়ের জন্য কিছু পরামর্শ দেয়া উচিত। যেমন সকালে বিছানা থেকে ওঠার আগে শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কিছুক্ষণ নাড়াচড়া করা দরকার। এ ছাড়া বিছানা থেকে ওঠার পর শুকনো টোস্ট বা বিস্কুট খেতে খেতে পায়চারি করলে বমিভাব দূর হয়। খালি পেটে তরল খাবার বা চর্বিজাতীয় খাবার না খাওয়া ভালো। এ সময় একেবারে বেশি না খেয়ে অল্প অল্প খাবার বারবার খেতে হবে। প্রয়োজনে বমি বা বমিভাব নিয়ন্ত্রণে নিরাপদ হোমিওপ্যাথি ওষুধ খাওয়া যেতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

ক্যান্সার প্রতিরোধক ৪টি অতি সাধারণ খাবার

rasun

আমরা প্রতিদিন অনেক ধরনের খাবারই খেয়ে থাকি পুষ্টি ও স্বাস্থ্যের প্রয়োজনে। এমন অনেক ধরনের খাবারই আমাদের নিত্যদিনের খাদ্যতালিকায় আছে যেগুলো অতি সাধারণ, রোজই খাওয়া হয়। কিন্তু অন্যদিকে এই সাধারণ খাবারগুলোই কাজ করে ক্যান্সার প্রতিরোধক হিসেবে। আপনি জানেন কি, সেই অসাধারণ খাবারগুলো কী কী? আসুন জেনে নিই।

বিস্তারিত পড়ুন…

সিজোফ্রেনিয়ার সাথে বসবাস

বিশ্বব্যাপী বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস পালিত হয় ১০ অক্টোবর। এ বছরের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘লিভিং উইথ সিজোফ্রেনিয়া’ মানে সিজোফ্রেনিয়ার সাথে বসবাস। মনের মাঝে নানা উদ্ভট চিন্তার রোগ সিজোফ্রেনিয়া। এ রোগ মানসিক রোগের মধ্যে সবচেয়ে জটিল। এ ধরনের রোগীর চিন্তাধারা, আবেগ, আচরণ ও কাজকর্মে নানা ধরনের অসংলগ্নতা ঘটে থাকে। ধরা যাক একজন ভালো ছাত্র মামুন, যার বয়স ২৩। ছাত্র হিসেবে ভালো হলেও সে বিএ পরীক্ষায় ফেল করে। তারপর দেখা গেল সে ঘরের দরজা আটকে বসে থাকে। আপন মনে বিড়বিড় করে। কারো সাথে সে কথা বলে না। আবার কারো সাথে ভয়ানক আচরণ করে। মনে মনে ভেবে নেয় তাকে তার বাবা-মা অথবা প্রতিবেশীরা মেরে ফেলবে। আবার বলে থাকে সে গায়েবি কথা শুনতে পায়। কথাবার্তা প্রায়ই এলোমেলো থাকে। প্রতিদিনের কাজকর্মে তার কোনো উৎসাহ নেই। এমন ধরনের মানসিক পরিবর্তন যখন কারো মধ্যে প্রকাশ পায় তখন তাকে চিকিৎসক সিজোফ্রেনিয়ার রোগী বলে চিহ্নিত করে।
সিজোফ্রেনিয়ার রোগীরা অনেক ভালো কাজও করতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

প্যারাসিটামল সম্পর্কে যে ১০টি তথ্য জেনে রাখা অত্যন্ত জরুরী!

paraব্যথা ও জ্বর নিরাময়ে প্যারাসিটামলের মতো নিরাপদ ওষুধ খুব বেশি নেই বলেই এটি আমাদের দেশে বহুল ব্যবহৃত। তাই আমরা কোন কারণে মাথা ব্যথা, জ্বর কিংবা শারীরিক কোন ব্যথা হলে প্যারাসিটামল সেবন করি। কিন্তু এই ক্ষেত্রে সতর্কতা প্রয়োজন, কেবল টুপ করে ট্যাবলেট গিলে ফেললেই সমস্যার সমাধান হবে না। বরং বাড়বে! প্যারাসিটামল সম্পর্কে আমাদের জানার পরিধি আরও কিছুটা বাড়ালে সবার উপকার হবে। আসুন জেনে নিই প্যারাসিটামল সম্পর্কে এমন কিছু তথ্য, যা জানা থাকা খুবই জরুরী।

বিস্তারিত পড়ুন…

স্পর্শজনিত চর্মরোগ

কোন কোন বস্তু চর্মরোগ সৃষ্টি করতে পারে তার সঠিক শ্রেণী বিভাগ করা সম্ভব নয়। তার কারণ আমাদের গোচরে ও অগোচরে বহু জিনিস আছে, যা চর্মরোগ সৃষ্টি করতে সক্ষম। যেমন রাসায়নিক দ্রব্যের কথা ধরা যাক। অনেক রাসায়নিক দ্রব্যের সংমিশ্রণে যে বস্তু উৎপন্ন হয় তার যদি রোগ সৃষ্টি করার ক্ষমতা থাকে, তাহলে সেই বস্তুকে চর্মরোগের কারণ হিসেবে ধরে নেয়া ভুল। কারণ যে যে কেমিক্যাল দ্বারা বস্তুটি তৈরি হয় তার কোন কেমিক্যাল চর্মরোগের জন্য দায়ী তা প্রায়ই প্রস্তুতকারকদের ধরা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

বিস্তারিত পড়ুন…

মেয়েদের প্রস্রাবে প্রদাহ

প্রস্রাবে প্রদাহ যেকোনো বয়সেই হতে পারে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে বয়ঃসন্ধির পর থেকে বৃদ্ধ বয়সের যেকোনো সময়। মূল উৎস হচ্ছে অপরিচ্ছন্নতা, দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকা, পায়ুনালী, ঘন ঘন কৃমি কর্তৃক সংক্রমণ, সহবাসের কারণে মূত্রনালীতে জীবাণু প্রবেশ করতে পারে। পায়ুনালী থেকে ই-কোলাই নামক জীবাণু কর্তৃক শতকরা ৭০-৮০ ভাগ প্রস্রাবের প্রদাহ হয়ে থাকে। অন্যান্য জীবাণুর মধ্যে প্রোটিয়াস, কেবসিয়েলা ও সিওডোমনাসের নাম উল্লেখযোগ্য। সম্প্রতি স্টেফাইলোকক্সাস স্কোরোফাইটিকাস নামক জীবাণু মেয়েদের ১৫ থেকে ৩০ ভাগ প্রস্রাবের কারণ।

বিস্তারিত পড়ুন…

মোট 37 পৃষ্ঠা এর মধ্যে 5« প্রথম পাতা...34567...102030...শেষ পাতা »