সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

দাঁতের যত্ন নিন

দাঁত শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। সুন্দর হাসির জন্য দাঁতের যেমন প্রয়োজন, তেমনি খাদ্যদ্রব্য চিবানো এবং মুখ ও চোয়ালের সৌন্দর্য রক্ষার জন্যও দাঁতের গুরুত্ব অপরিসীম। আর একটু সচেতন হলেই আমরা দাঁতকে সুস’ ও সুন্দর রাখতে পারি। এর জন্য প্রয়োজন সঠিক পরিচর্যা ও প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ।

বিস্তারিত পড়ুন…

হাঁটুর বাতব্যথা

অনেক দিন শরীরে ব্যথা থাকলে তাকে অনেকে বাতব্যথা বলে থাকেন। কথাটা কিন’ মিথ্যা নয়। আমরা ডাক্তারি বিদ্যায় এটাকে রিউমেটিক পেইন বলে থাকি। তবে বাংলাদেশের গ্রামেগঞ্জে এটা বাতব্যথা নামেই পরিচিত। সন্ধিবাত বা জোড়াব্যথা জীবনে হয়নি এমন মানুষ খুব কম। এ ধরনের বাতব্যথা সাধারণত বয়স্কদের বেশি হয়, তবে কম বয়সীরাও অনেক সময় এ রোগে ভুগে থাকে।

বিস্তারিত পড়ুন…

কতটুকু আমিষ খাবেন

প্রাপ্তবয়স্কদের শরীরের প্রতি কেজি ওজনের জন্য এক গ্রাম করে, অর্থাৎ মোট ক্যালরির শতকরা ৩০ ভাগ। তবে ক্ষেত্র বিশেষে যেমন- গর্ভাবস’ায়, স্তন্যদানকালীন, বাড়ন্ত বয়সে, শরীর ক্ষয় হয় এমন অবস’া যেমন- যক্ষ্মারোগে, ডায়াবেটিস, প্যারাসাইটজনিত সংক্রমণ, যেকোনো কারণে রক্তক্ষরণ হলে, শরীর পুড়ে গেলে আমিষের চাহিদা স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

মূত্রনালী সঙ্কীর্ণ হয়ে যাওয়া

ইউরেথ্রাল স্ট্রিকচার হলো মূত্রনালী সঙ্কীর্ণ হয়ে যাওয়া। এই সঙ্কীর্ণতা ঘটে আঘাত বা রোগ যেমন মূত্রপথের সংক্রমণ বা মূত্রনালীর প্রদাহের কারণে।

বিস্তারিত পড়ুন…

যদি চেহারায় বয়সের ছাপ পড়ে

জন্মের পর থেকেই মানুষের বয়স বাড়তে থাকে। এক বছর, দুই বছর- এ রকম করে এক সময় মানুষ যৌবনে উপনীত হয়। কিন’ যৌবনের পর থেকেই বয়স মানুষের শরীরে নানা রকম ছাপ রেখে যায়। শরীরে বয়সের ছাপ পড়ার অনেক কারণ রয়েছে। সেসব কারণ সম্পর্কে এবার কিছুটা আলোকপাত করা যাক।

বিস্তারিত পড়ুন…

শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর উপকারিতা

-প্রসবের পরপরই শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ালে জরায়ু তাড়াতাড়ি সঙ্কুচিত হয়। তাতে গর্ভফুল তাড়াতাড়ি বের হয়ে আসে এবং এতে মায়ের প্রসব পরবর্তী রক্তক্ষরণের আশঙ্কা কমে যায়।

বিস্তারিত পড়ুন…

রক্ত বাড়ায় লালশাক

লালচে গোলাপি লালশাক। হিমোগ্লোবিনে পূর্ণ এই শাক। আমাদের দেশের অতি পরিচিত শাকগুলোর মধ্যে লালশাক তৈরি করে সবচেয়ে বেশি রক্ত। খাবার চিবাতে পারে এমন শিশুদের জন্য লালশাক ভীষণ উপকারী। কারণ, শিশুদের আয়রন, আয়োডিন দরকার হয় প্রচুর পরিমাণে। আর লালশাক আয়রনের উৎকৃষ্ট উৎস।

বিস্তারিত পড়ুন…

গভীর শ্বাস সুস্বাস্থ্যের জন্য

সুস্বাস্থ্যের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ চাবিকাঠি হলো ‘শ্বাসক্রিয়া’। একে আমরা প্রায়ই নজরে আনি না। মানুষের নিঃশ্বাস-প্রশ্বাস চলছে অবিরাম, মিনিটে ১৫-২০ বার; পুরো দিন, প্রতিদিন, যত দিন বেঁচে থাকি। শ্বাসকর্মটি স্বয়ংক্রিয় এবং প্রতিবর্ত ক্রিয়া বটে।

বিস্তারিত পড়ুন…

শিশুর ডায়াবেটিস ও তার খাবার

দিন যত যাচ্ছে, ডায়াবেটিক রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। বিগত বছরগুলোর চেয়ে শিশুর ডায়াবেটিসের হার বর্তমান সময় অনেক বেশি। বাংলাদেশের বেশির ভাগ শিশুই অপুষ্টিজনিত সমস্যায় ভোগে, যে কারণে আমাদের দেশসহ অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশে অপুষ্টিজনিত ডায়াবেটিসে শিশুরাই বেশি ভোগে।

বিস্তারিত পড়ুন…

ঋতু পরিবর্তন ও রোগবালাই

আমার নিজেরই ঠান্ডা-কাশি। সারছে না। অ্যান্টিবায়োটিক খাচ্ছি। ঋতু পরিবর্তনের এই সময়টাতে দেশজুড়ে সবাই কমবেশি ঠান্ডা, জ্বর, কাশিতে ভুগি। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে সমস্যাটা একটু বেশি। কাশিতে ভুগছি বেশি। কাশি হওয়া মানেই যে গুরুতর অসুস্থ, তা নয়। আবার সচেতন থাকাও জরুরি। সুস্থ-স্বাভাবিক শিশু ঠান্ডায় আক্রান্ত হলে কাশি হতে পারে। দিনে এক থেকে ৩০ বার পর্যন্ত শিশু কাশতে পারে। চলতে পারে সপ্তাহ দুয়েক। তবে রাতে ঘুমের মাঝে কাশি হলে ধরতে হবে অস্বাভাবিক কাশি। তখন চিকিৎসকের পরামর্শ দরকার।

বিস্তারিত পড়ুন…

সার্ভাইক্যাল স্পনডাইলোসিস – ঘাড়ের ব্যথা

ঘাড়ে ব্যথার নানাবিধ কারণ রয়েছে। যেমন- যেকোনো ধরনের আঘাত লাগা, পজিশনাল অর্থাৎ ঘাড়ের নড়াচড়ার কারণে ব্যথা, হাড়ের ইনফেকশন, অস্টিওপরোসিস, টিউমার, অস্টিও ম্যালেসিয়া বা ভিটামিন ডি-এর অভাব, সার্ভাইক্যাল স্পনডাইলোসিস ইত্যাদি। তবে সাধারণত ঘাড়ে ব্যথা সার্ভাইক্যাল স্পনডাইলোসিসের জন্য বেশি হয়। যাদের বয়স ৪৫ বছরের বেশি তাদের মধ্যেই এ রোগ বেশি দেখা যায়। সার্ভাইক্যাল স্পনডাইলোসিস ঘাড়ের দুই হাড়ের মধ্যবর্তী তরুণাসি’র বার্ধক্যজনিত পরিবর্তনের ফলে হয়ে থাকে।

বিস্তারিত পড়ুন…

পেরোনিজ ডিজিজ : সার্জারিই কি একমাত্র চিকিৎসা?

বেশির ভাগ পুরুষের লিঙ্গ কিছুটা বাঁকা থাকে কিংবা একপাশে হেলে থাকে। প্রতি এক লাখ পুরুষের মধ্যে প্রায় ৪০০ জনের লিঙ্গ উত্থিত অবস’ায় খুব বেঁকে যায়। চিকিৎসক সমাজ এ অবস’াটির নাম দিয়েছেন পেরোনিজ ডিজিজ। কখনো কখনো একে ফাইব্রাস কেভারোসাইটিস বলা হয়। এ পরিসি’তিতে ইরেকটাইল টিস্যুর (কেভারনোসা) স্তরগুলোতে ফাইব্রাস স্কার টিস্যু তৈরি হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

মোট 37 পৃষ্ঠা এর মধ্যে 29« প্রথম পাতা...1020...2728293031...শেষ পাতা »