সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

মানসিক রোগ আত্মঘাত

প্রায়ই আমরা দেখতে পাই যে, কোনো কোনো মানুষ কারণ ছাড়াই নিজের ইচ্ছামত নিজের হাত-পা কাটে বা পুড়িয়ে ফেলে। যাকে ইংরেজিতে বলা হয় self-injury. একে আমরা আত্মঘাত বলতে পারি। সাধারণত এটা শরীরে দাগ ফেলে বা কোষের ক্ষতি করে। কেন মানুষ নিজেই তার নিজের শরীর কাটে বা পোড়ায়—তা বোঝা কষ্টকর। অধিকাংশ মানুষের কাছে এটা ভয়ঙ্কর। কিন্তু এমন মানুষের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

বিস্তারিত পড়ুন…

প্রস্রাবে ইনফেকশন : প্রতিকার ও প্রতিরোধ

অ্যান্টিবায়োটিকস বা যে ওষুধ দিয়ে রোগজীবাণু ধ্বংস করা যায়, তা সেবনে মূত্রথলির ইনফেকশন কিংবা প্রস্রাবের ইনফেকশন দূর করা সম্ভব। সাধারণত সাত থেকে দশ দিন ওষুধ ব্যবহারে জীবাণুর মূলোত্পাটন করা সম্ভব, যদিও কোনো কোনো ক্ষেত্রে একটিমাত্র অ্যান্টিবায়োটিক সেবনেই ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণ করা যায়। মনে রাখতে হবে এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণও বটে, যে ওষুধ সেবনে যতদিন ও যেভাবে নির্দেশনা দেয়া হয়, ততদিনই সেবন করতে হবে।

বিস্তারিত পড়ুন…

ব্যায়ামের উপকারিতা

ব্যায়ামের অজানা উপকারিতা
ব্যায়াম বা শরীরচর্চা করা উপকারী। কিন্তু কতটুকু উপকারী, তা অনেকেই জানি না। নিয়মিত ব্যায়াম করলে নানা রকম দীর্ঘমেয়াদি রোগব্যাধি থেকে মুক্ত থাকা যায়, ওজন কমানো যায়, ভালো ঘুম হয় আর মানসিক প্রশান্তি আসে।

বিস্তারিত পড়ুন…

হয়ে উঠুন স্মার্ট রোগী

রোগী দেখা শেষ। সমস্যা শুনে ব্যবস্থাপত্র লিখে দিয়েছেন চিকিত্সক। রোগী চলেও গেছে কক্ষের বাইরে। নতুন রোগী ঢুকে কেবল বসেছে চেয়ারে। এ সময় পুরনো ওই রোগী আবার দরজার ফাঁক দিয়ে মাথা গলিয়ে লজ্জিত গলায় বলল, ‘সরি ডক্টর, একটা কথা বলতে ভুলে গিয়েছিলাম… ।’
ঘটনা বিরল নয়। বরং প্রতিদিনই চিকিত্সকেরা এ ধরনের ঘটনার মুখোমুখি হচ্ছেন। রোগী হিসেবে আপনিও নিশ্চয় এ পরিস্থিতিতে পড়েছেন।

বিস্তারিত পড়ুন…

যেসব উপসর্গ অবহেলার নয়

আমরা বেশিরভাগই স্বাস্থ্য সচেতন নই। শেষ পর্যায়ে ছাড়া ডাক্তারের কাছে কেউ সহজে যেতে চাই না। কিন্তু অনেক উপসর্গ আছে যেগুলো অবহেলার নয়। এসব উপসর্গের যে কোনোটি দেখা দিলে অবিলম্বে ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত। তা না হলে মারাত্মক বিপদে পড়তে হতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

রাগ করা ভালো নয়

মনের প্রতিক্রিয়ার প্রকাশ ঘটে রাগের মাধ্যমে। প্রতিক্রিয়াশীল এ মনের প্রতিক্রিয়াটি হয় নেগেটিভ। পরিচিত কাউকে রাগের কারণ বর্ণনা করলে রাগমোচন হয়ে মনটা শান্ত হয়। আবার প্রতিশোধ গ্রহণ করেও কারো কারো রাগমোচন ঘটে থাকে। আবার কেউ বা রাগ করে গোমড়া ভাব, প্যান প্যানানি বা ঝগড়া করে প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে।

বিস্তারিত পড়ুন…

১১ দিনেই রিচার্ডের ডায়াবেটিস নির্মূল, অভাবনীয় ডায়েট

বৃটেনের রিচার্ড ডটি (৫৯) নামের এক ব্যক্তি বেশ অল্প ক্যালোরিসম্পন্ন খাবার খেয়ে ১১ দিনেই ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তার ডায়েট চার্টটিও দিয়েছেন। যা যা খেতেন, তার তালিকা একেবারেই ছোট। ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ যা কখনও সম্পূর্ণ নির্মূল হয় না। এমন প্রচলিত ধারণাকে পাল্টে দিয়েছেন রিচার্ড। মানুষ শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে বিভিন্ন ডায়েট পরিকল্পনা করে। কিন্তু তিনি প্রায় অভুক্ত থাকার ডায়েটেই নিরোগ শরীর পেলেন।

বিস্তারিত পড়ুন…

রোজায় কী খাবেন, কী খাবেন না

রোজার মাসে মনে হয় আমরা খাবারের প্রতিযোগিতা করি। কে কত খেতে বা রান্না করতে পারে। কিন্তু এসব ভাজা-পোড়া, গুরুপাক খাবার খেয়ে আমাদের কী হতে পারে তা কি আমরা জানি? সারাদিন রোজা রেখে আমাদের পাকস্থলী খুব ক্ষুধার্ত ও দুর্বল থাকে। তারপর যদি এত রকম গুরুপাক খাবার একসঙ্গে খাওয়া হয় তাহলে কি অবস্থা হবে? পেটের সমস্যা, মাথাব্যথা, দুর্বলতা, অবসাদ, আলসার, এসিডিটি, হজমের সমস্যা ইত্যাদি হবে রোজার নিত্যসঙ্গী। অনেকের ওজনও বেড়ে যায়। রোজার মাস সংযমের মাস। খাওয়া থেকে শুরু করে ব্যায়াম, জীবনযাত্রা সবই হতে হবে নিয়ম মতো, সাধারণ এবং পরিমিত।

বিস্তারিত পড়ুন…

দরকারী : রোজার নানা উপকারিতা

চিকিত্সা বিজ্ঞানের জনক ডা. হিপোক্রেটিস বহু শতাব্দী আগে বলেছেন, The more you nourish a deseased body, the worse you make it. অর্থাত্ অসুস্থ দেহে যতই খাবার দেবে, ততই রোগ বাড়তে থাকবে। রোজা একজন মানুষের শুধু পাকস্থলী বা হৃিপণ্ডকে সক্রিয়ই রাখে না; বরং অন্য প্রায় সব রোগের জন্যও যথেষ্ট উপকারী।

বিস্তারিত পড়ুন…

রোজায় খাদ্যাভ্যাস ও করণীয়

ইসলামের জীবন ব্যবস্থায় পাঁচটি স্তম্ভ রয়েছে, তার মধ্যে রমজান মাসের রোজা অন্যতম। সুস্থ প্রাপ্তবয়স্ক সব মুসলমানের জন্য রমজান মাসের রোজা ফরজ করা হয়েছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপবাসের নিয়ত করে সুবেহ সাদিক থেকে সূর্যাস্ত্ত পর্যন্ত পানাহার ও সব ধরনের ইন্দ্রিয় তৃপ্তিকর কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকার নাম রোজা। রমজান মাসে আল্লাহ তায়ালা মানুষের জন্য অফুরন্ত রহমত, বরকত, মাগফিরাত, নাজাত ও ফজিলত দান করেন। রমজান মাসের রোজার ফজিলত বর্ণনা করে শেষ করা যায় না। হুজুর পাক (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি রমজান মাসে ঈমানের সঙ্গে কেবল আল্লাহর সন্তুষ্টি ও আখিরাতের কল্যাণ লাভের আশায় রোজা পালন করবে, আল্লাহ তায়ালা তার আগের সব সগিরা গোনাহ মাফ করে দেবেন।’

বিস্তারিত পড়ুন…

রমজান, রোজা ও আমাদের স্বাস্থ্য

ramadan6রহমত, বরকত আর মাগফিরাতের মাস এই রমজান মাস; যা মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য মহান রবের পক্ষ থেকে এক অফুরন্ত নেয়ামত। এ মাসেই অবতীর্ণ হয়েছে বিশ্বমানবতার মহা আসমানী গ্রন্থ আল কুরআন। তাই এ মাসকে কুরআনের মাসও বলা হয়। এ মাসের অনেক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এ মাসে মুমিনগণ রোজা রেখে তাকওয়া তথা খোদাভীতি অর্জন করেন। আর এটাই হচ্ছে রোজার প্রধান বৈশিষ্ট্য। এ মাসের নফল ইবাদত অন্য মাসের ফরজের সমান। আর এ মাসের একটা ফরজ ইবাদত অন্য মাসের ৭০টি ফরজের সমান। এ মাসে বেহেশতের দরজা খুলে দেয়া হয় এবং দোজখের দরজা বন্ধ করে দেয়া হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

কোমরে ব্যথা হলে…

বেশিরভাগ মানুষই জীবনের কোনো না কোনো সময় কোমর ব্যথাজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন। আমাদের দেশে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে চারজন জীবনের কোনো না কোনো সময় এ সমস্যায় ভোগেন। আগে মানুষের ধারণা ছিল কোমর ব্যথা শুধু বয়স্কদের হয়, কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, কোমর ব্যথা যে কোনো বয়সেই হতে পারে। মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি, কর্পোরেট পেশা, নগরায়ন, শরীরচর্চার অভাব, জীবিকার তাগিদে অত্যধিক পরিশ্রম, শ্রমিক পেশাজীবী, কম্পিউটিং, চলাফেরা, শোয়া-বসায় ভুল অবস্থান, শারীরিক দুর্ঘটনা ইত্যাদি কারণে কোমর ব্যথার রোগী দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বিস্তারিত পড়ুন…

মোট 37 পৃষ্ঠা এর মধ্যে 11« প্রথম পাতা...910111213...2030...শেষ পাতা »