সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

গরমে আরামে ঘুমাতে চাইলে…

গরমে আরামে ঘুমাতে চাইলে...

এই গরমের সময় দিনটা তো নানা কাজকর্মে কেটে যায়। কিন্তু রাতে দুর্ভোগের যেন শেষ নেই। রাতে বিশ্রাম নেবার সময়েই যদি অস্বস্তি হয় আর গরম লাগে? এ জন্য ঘুমের সমস্যা যেমন দেখা দেয় তেমন আরও নানা কারণে দুর্ভোগ যেন চরমে ওঠে। আসুন জেনে নেই, এই গরমের মাঝে কি করে একটু আরামে ঘুমাতে পারবেন।

বিস্তারিত পড়ুন…

যেসব খাবারে ফুসফুস ভালো থাকবে

আমাদের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলোর মধ্যে ফুসফুস অন্যতম। এটি সাধারণত আমাদের শ্বাসপ্রশ্বাসের মাধ্যমেই চালিত হয়। কাজেই ফুসফুস চারপাশের বায়ু থেকে নানা ক্ষতিকর উপাদান গ্রহণ করবে এটাই স্বাভাবিক। এর ফলে শ্বাস প্রশ্বাসের নানা সমস্যা বিশেষ করে অ্যাজমা, ব্রঙ্কাইটিস, নিউমোনিয়া, সাইটিক ফিব্রোসিস প্রভৃতি হতে পারে। কাজেই এসব সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত ব্যায়াম, বায়ুদূষণ এড়ানো এবং ধূমপান না করা প্রভৃতি অনেক জরুরি। তবে এগুলোই যথেষ্ট নয়। সুস্থ থাকতে একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েট মেনে চলাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে প্রতিদিনের ডায়েটে এমন কিছু খাবার রাখতেই পারেন যা আপনার ফুসফুস ভালো রাখতে সাহায্য করবে। 

বিস্তারিত পড়ুন…

নাশতায় যা খাবেন, যা খাবেন না

খালি পেটে সবকিছুই মজাদার। হাতের কাছে যা পাওয়া যায়, সেটাই তখন অমৃত। তবে সকালবেলার প্রথম খাবার একটু বাছবিচার করে খাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। অনেক খাবারই আছে যেগুলো খালি পেটে খেলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে শরীরের ওপর। দিনের বাকি সময়ে ভোগাতে থাকে অ্যাসিডিটি ও বুক জ্বালার মতো সমস্যা। আবার কিছু খাবার আছে, যা সারাদিনের জন্য শরীর ও মন দুটোরই শক্তি জোগাবে এবং প্রশান্তি দেবে।

বিস্তারিত পড়ুন…

৩০ বছর বয়সে যেসব টেস্ট অবশ্যই করা উচিত

বয়সের সাথে বাড়ে শারীরিক জটিলতা৷ কিছু রোগের সূত্রপাত শুরু হয় ৩০ বছর বয়স থেকেই৷ তাই এই সময় থেকেই কিছু পরীক্ষা করে রাখা প্রয়োজন৷ এইসব পরীক্ষা আপনার শারীরিক সুস্থতা বুঝতে সাহায্য করবে৷ দেখে নিন চিকিৎসকদের মতে কী কী পরীক্ষা প্রয়োজন আপনার শরীর সুস্থ আছে কি না জানতে৷

বিস্তারিত পড়ুন…

সুস্বাস্থ্যে খাদ্য ও পুষ্টি

drink-water৪গ্রীষ্মের তাপে আমাদের শক্তির অনেক অপচয় হয়। এ সময় ঘামের কারণে ক্লান্তি, অলসতা আমাদের কাবু করে দেয়। এজন্য প্রকৃতি যখন অগ্নি ঝরায়, তখন উচিত এমন খাবার গ্রহণ করা, যা আমাদের শরীরকে ঠাণ্ডা ও সুস্থ রাখে।

বিস্তারিত পড়ুন…

বার্ধক্য প্রতিরোধে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট

বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে দেখেছেন, কিছু কিছু নিয়ম মেনে চললে বার্ধক্যকে অনেক দিন প্রতিরোধ করা যায় এবং রোগব্যাধিও দূরে থাকবে। তবে এ জন্য আপনার খাদ্য তালিকায় থাকতে হবে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। বিভিন্ন দুরারোগ্য ব্যাধি যেমনÑ ক্যান্সার, হার্ট অ্যাটাক, থ্রম্বসিস ইত্যাদির হাত থেকে মুক্তি পেতেও আমাদের শরীরের জন্য অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের প্রচুর দামি খাবার খেতে হবে, মোটেও তা নয়। আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকাতেই লুকিয়ে আছে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। বিটা ক্যারোটিন, আলফা ক্যারোটিন, লাইকোপিন, ক্রিপটোঅ্যানথিন, পলিফিনলিক এসিড, ট্যানিন, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি, ভিটামিন-ই, কপার, জিঙ্ক, সেলেনিয়াম, আয়রন ইত্যাদি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হিসেবে কাজ করে।

বিস্তারিত পড়ুন…

দুধ, মিউকাস এবং কাশি

আমরা ভাত মাছ গোশতসহ কত কি-না খাবার খেয়ে থাকি তেমনি একটি খাবার দুধ। কিছু রোগী অভিযোগ করেন যে, দুধ খেলে তাদের সর্দি হয়, গলায় অস্বস্তি হয় এবং কাশি হয়। কেন এসব ঘটে?

বিস্তারিত পড়ুন…

ব্রংকিয়েকটিসিস : দীর্ঘস্থায়ী বক্ষব্যাধি

ব্রংকিয়েকটিসিস একধরনের বক্ষব্যাধি। এর লক্ষণ ও উপসর্গ অনেকটা যক্ষ্মার মতোই। তাই এ দু’টি রোগ নির্ণয়ে অনেক সময় ভুল হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে প্রচুর রোগী অযথা যক্ষ্মা রোগের ওষুধ মাসের পর মাস বিনা উপকারেই খেয়ে চলেছেন। হিসাব কষলে দেখা যাবে, ব্রংকিয়েকটিসিস রোগে আক্রান্ত রোগী সংখ্যায় নেহায়েত কম নয়, যদিও অ্যান্টিবায়োটিকের আবিষ্কারের আগে এর উপস্থিতি ছিল ব্যাপক।
এটা ফুসফুসের একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ। এ রোগের ফলে ফুসফুসের শ্বাসনালীতে বড় ধরনের প্রদাহ দেখা দেয়। আক্রান্ত স্থানের শ্বাসনালীগুলো তখন ফুলে মোটা হয়ে যায়।

বিস্তারিত পড়ুন…

মেয়েলি সমস্যা : মাসিকপূর্ব ব্যথা

কিছু কিছু মহিলার মাসিক চক্র শুরু হওয়ার কিছু দিন আগে শারীরিক, মানসিক ও আবেগজনিত কিছু অস্বস্তিকর অবস্থা দেখা দেয়। এই অবস্থাকে প্রিম্যানুস্ট্রাল সিনড্রোম বলা হয়। বাস্তবে কিন্তু প্রায় ১৫০ রকমের সমস্যা বা উপসর্গ এই অবস্থায় দেখা যেতে পারে। তবে যে ক’টি খুব বেশি কমন উপসর্গ দেখা যায়, সেগুলো হচ্ছে হতাশা, টেনশন, দুশ্চিন্তা, মনের অস্থিরতা, রাগ হওয়া, মনোযোগের অভাব, অবসাদগ্রস্ততা, ওজন বাড়া, শরীরে পানি জমা, পেট ফোলা, স্তনে ব্যথা, হাড় অথবা মাংসপেশিতে ব্যথা, বমি ভাব, বমি হওয়া, মাথা ব্যথা ইত্যাদি। বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা যায়, শতকরা ৪০ ভাগ মহিলার এ সমস্যা খুবই তীব্র আকার ধারণ করতে পারে। যার ফলে তাদের দৈনন্দিন জীবনের কার্যকারিতা ব্যাহত হতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

পেশাসংশ্লিষ্ট অ্যাজমা রোগ

পেশাসংশ্লিষ্ট অ্যাজমা বলতে আমরা ফুসফুসের সেসব অসুখ বুঝে থাকি যেগুলোর উৎপত্তি হয় কর্মস্থলের ধোঁয়া, ধুলো, গ্যাস বা অন্যান্য ক্ষতিকর উপাদান নিঃশ্বাসের সাথে গ্রহণ করার মাধ্যমে। হতে পারে কর্মস্থলে গিয়ে কোনো কর্মী জীবনে প্রথম অ্যাজমাতে আক্রান্ত হন বা এমনও হতে পারে যে, তার কৈশোরকালে অ্যাজমা ছিল, পরবর্তী সময়ে তিনি সুস্থ ছিলেন এবং কর্মস্থলে এসে আবার আক্রান্ত হলেন। আবার কেউ কেউ মৃদু অ্যাজমার রোগী থাকেন কিন্তু কর্মস্থলে এসে তার অ্যাজমা মারাত্মক রূপ ধারণ করে।

বিস্তারিত পড়ুন…

গর্ভাবস্থায় শারীরিক সমস্যা

বমি সাধারণত সকালের দিকেই হয়। বিশেষত সকালে বিছানা থেকে ওঠার পরপরই এ রকম হয়। প্রথম গর্ভাবস্থায় সাধারণত এটা বেশি হয়। এটা সাধারণত মাসিক বন্ধের মাস অথবা তার পরের মাস থেকে শুরু হয়। প্রথম তিন মাসের পর এই কষ্ট ক্রমেই কমে যায়। এই উপসর্গ সাধারণত মায়ের শরীরের খুব বেশি ক্ষতি করে না। তবে খাওয়া কমে যাওয়ার জন্য দুর্বলতা দেখা দিতে পারে। তাই ভাবী মাকে বোঝানো দরকার যে সন্তান ধারণের জন্য এইটুকু কষ্ট তাকে সহ্য করতে হবে। এ সময় ভাবী মায়ের জন্য কিছু পরামর্শ দেয়া উচিত। যেমন সকালে বিছানা থেকে ওঠার আগে শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কিছুক্ষণ নাড়াচড়া করা দরকার। এ ছাড়া বিছানা থেকে ওঠার পর শুকনো টোস্ট বা বিস্কুট খেতে খেতে পায়চারি করলে বমিভাব দূর হয়। খালি পেটে তরল খাবার বা চর্বিজাতীয় খাবার না খাওয়া ভালো। এ সময় একেবারে বেশি না খেয়ে অল্প অল্প খাবার বারবার খেতে হবে। প্রয়োজনে বমি বা বমিভাব নিয়ন্ত্রণে নিরাপদ হোমিওপ্যাথি ওষুধ খাওয়া যেতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন…

স্পর্শজনিত চর্মরোগ

কোন কোন বস্তু চর্মরোগ সৃষ্টি করতে পারে তার সঠিক শ্রেণী বিভাগ করা সম্ভব নয়। তার কারণ আমাদের গোচরে ও অগোচরে বহু জিনিস আছে, যা চর্মরোগ সৃষ্টি করতে সক্ষম। যেমন রাসায়নিক দ্রব্যের কথা ধরা যাক। অনেক রাসায়নিক দ্রব্যের সংমিশ্রণে যে বস্তু উৎপন্ন হয় তার যদি রোগ সৃষ্টি করার ক্ষমতা থাকে, তাহলে সেই বস্তুকে চর্মরোগের কারণ হিসেবে ধরে নেয়া ভুল। কারণ যে যে কেমিক্যাল দ্বারা বস্তুটি তৈরি হয় তার কোন কেমিক্যাল চর্মরোগের জন্য দায়ী তা প্রায়ই প্রস্তুতকারকদের ধরা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

বিস্তারিত পড়ুন…

মোট 24 পৃষ্ঠা এর মধ্যে 112345...1020...শেষ পাতা »