সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

নাকে চুলকানি ও অ্যালার্জি

ঘন ঘন ও বেশি হাঁচি, নাক দিয়ে পানি ঝরা বা নাক বন্ধ থাকা, নাক, চোখ ও গলায় চুলকানি অ্যালার্জির লক্ষণ। এই অ্যালারজেন নাক, গলা ও ফুসফুসে আক্রমণ করে। এজন্য গলাব্যথা বা গলা বসে যাওয়া এবং দম বন্ধভাব হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

সাইনাস হেডেক

কপাল ব্যথার লক্ষণটি সাইনাস হেডেক নামে পরিচিত। এটি এমন এক ধরনের মাথাব্যথা, যা সাইনোসাইটিসের সঙ্গে দেখা দিতে পারে। সাইনোসাইটিসের কারণে সাইনাসের মেমব্রেন ফুলে ওঠে এবং সেখানে ইনফ্লামেশন সৃষ্টি হয়। এ কারণে চোখের চারপাশ, গাল ও কপালে চাপ অনুভূত হতে পারে। এ ছাড়া মাথা ধবধব করার অনুভূতি হওয়ারও আশঙ্কা থাকে। যেসব ব্যক্তির সাইনাস হেডেকের অনুভূতি হয়, তাদের মূলত মাইগ্রেন ও মানসিক চাপজনিত মাথাব্যথার কারণেই এমন অনুভূতি হয়ে থাকে। সাইনোসাইটিসের কারণে সাইনাস হেডেক হলে সঠিক পরীক্ষা ও চিকিৎসার মাধ্যমে স্বস্তি পাওয়া যায়।

বিস্তারিত পড়ুন…

ঠাণ্ডা থেকে অ্যালার্জি

সাধারণত শীতকালে আমাদের দেশে বিভিন্ন বয়সের মানুষের শীতকালীন কিছু উপসর্গ দেখা দেয়, কোল্ড অ্যালার্জি বা শীত সংবেদনশীলতা। আমরা দেখে থাকি শীত এলেই অনেক শিশু বা বয়স্ক ব্যক্তি হঠাত্ অসুস্থ হয়ে পড়েন বা শীতজুড়ে অসুস্থ থাকেন। এর বেশিরভাগ হয়ে থাকে কোল্ড অ্যালার্জির কারণে। ঠাণ্ডা বাতাস, সিগারেটের ধোঁয়া, সুগন্ধি, তীব্র গন্ধ, পত্রিকা বা বই-খাতার ধুলা যাতে মাইট থাকে, ফুলের রেণু, মোল্ড ইত্যাদির উপস্থিতি অনেকেই একেবারে সহ্য করতে পারেন না। এসবের উপস্থিতি শ্বাসকষ্ট, হাঁপানি বা অ্যাজমা, সর্দি ইত্যাদির দেখা দেয়। এসব বিষয়কে চিকিত্সা বিজ্ঞানের ভাষায় এলার্জেন বলা হয়। এসব এলার্জেনজনিত উপসর্গকে আমরা অ্যালার্জি বলে থাকি। সুতরাং প্রচণ্ড শীতও অনেকের জন্য এলার্জেন হিসেবে কাজ করে এবং এ কারণে সৃষ্ট উপসর্গকে কোল্ড অ্যালার্জি বলা হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

প্রতিদিন ১ চামচ মধুর এক ডজন স্বাস্থ্য উপকারিতা

মধু তার অসাধারণ ঔষধি গুনের কারনে প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। মধুর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন বি১, বি২, বি৩, বি৫, বি৬, আয়োডিন, জিংক ও কপার সহ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান যা আমাদের শুধুমাত্র দেহের বাহ্যিক দিকের জন্যই নয়, দেহের অভ্যন্তরীণ অঙ্গ প্রত্যঙ্গের সুরক্ষায় কাজ করে।

সর্বগুন সম্পন্ন এই মধুর গুনের কথা বলে শেষ করা যাবে না। স্বাস্থ্য সুরক্ষা, চিকিৎসা, সৌন্দর্য চর্চা- কোথায় নেই মধুর ব্যবহার? আসুন দেখে নেয়া যাক মাত্র এক চামচ মধু কি কি অসাধারণ উপকারে লাগতে পারে আপনার।

বিস্তারিত পড়ুন…

মাইগ্রেইনের ৭ কারণ ও সহজ প্রতিকার…

মাইগ্রেইন’ জাতীয় মাথাব্যথার সমস্যায় যারা আক্রান্ত, তাদের জীবনটা সময়মতো একটা সুন্দর ছকে বেঁধে না ফেললে, সমস্যা থেকে পরিত্রাণের পথ পাওয়া দুষ্কর। তবে, তার আগে নিজের রোগটি সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে হবে। জানতে হবে কি করা উচিত, আর কি করা উচিত নয়। এ জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নিন, নিয়মিত এ সংক্রান্ত বই পড়–ন, ইন্টারনেট থেকে তথ্য জানুন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে জানা সত্ত্বেও, আমাদের অনিয়মের নিয়মিত অভ্যাসটাই সবচেয়ে বড় বিপত্তি ডেকে আনে। কি কি কারণে মাইগ্রেইন হতে পারে, তা বিস্তারিত জেনে নেয়াটা জরুরি।

বিস্তারিত পড়ুন…

ঘরের ধুলো থেকে অ্যালার্জি

বছরব্যাপী মানুষ ভোগে নাক থেকে পানি ঝরায়, চোখ চুলকানি, চোখ থেকে পানি ঝরায়। তার মূল কারণ ঘরের ধুলোর জীবাণু। ধুলোর কারণে অ্যাজমা রোগীদের শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়, নিঃশ্বাসের সাথে সাথে কাশি হয়। ঘরের ধুলো থেকে অ্যালার্জি হয় কেন ঘরের ধুলো প্রকৃতপক্ষে অনেক জিনিসের মিশ্রণ। এর উপাদানগুলো কম-বেশি হতে পারে এক ঘর থেকে আরেক ঘরের ফার্নিচারের প্রকারভেদে, ঘর তৈরির উপাদানের কারণে, পোষা প্রাণীর উপস্থিতির কারণে, আর্দ্রতার কারণে।

বিস্তারিত পড়ুন…

সাইনোসাইটিস লক্ষণ ও উপসর্গ

১. নাকে সর্দি হওয়া, বা নাক দিয়ে ক্রমাগত পানি পড়া এবং শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া; বিশেষত যখন ঠাণ্ডায় আক্রান্ত ব্যক্তি সাত দিনেরও বেশি সময়ে সেরে না ওঠে।
২. নাক দিয়ে সবুজ কিংবা হলুদ পদার্থ বেরিয়ে এলে। মাঝেমধ্যে অবশ্য রক্তের ছোঁয়াও সেখানে লেগে থাকতে পারে। আক্রান্ত ব্যক্তির গলার ভেতরে খুসখুস করে অস্বস্তিকর অনুভব হওয়া এবং সে কারণে কাশি হওয়া।

বিস্তারিত পড়ুন…