সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

ঠাণ্ডা থেকে অ্যালার্জি

সাধারণত শীতকালে আমাদের দেশে বিভিন্ন বয়সের মানুষের শীতকালীন কিছু উপসর্গ দেখা দেয়, কোল্ড অ্যালার্জি বা শীত সংবেদনশীলতা। আমরা দেখে থাকি শীত এলেই অনেক শিশু বা বয়স্ক ব্যক্তি হঠাত্ অসুস্থ হয়ে পড়েন বা শীতজুড়ে অসুস্থ থাকেন। এর বেশিরভাগ হয়ে থাকে কোল্ড অ্যালার্জির কারণে। ঠাণ্ডা বাতাস, সিগারেটের ধোঁয়া, সুগন্ধি, তীব্র গন্ধ, পত্রিকা বা বই-খাতার ধুলা যাতে মাইট থাকে, ফুলের রেণু, মোল্ড ইত্যাদির উপস্থিতি অনেকেই একেবারে সহ্য করতে পারেন না। এসবের উপস্থিতি শ্বাসকষ্ট, হাঁপানি বা অ্যাজমা, সর্দি ইত্যাদির দেখা দেয়। এসব বিষয়কে চিকিত্সা বিজ্ঞানের ভাষায় এলার্জেন বলা হয়। এসব এলার্জেনজনিত উপসর্গকে আমরা অ্যালার্জি বলে থাকি। সুতরাং প্রচণ্ড শীতও অনেকের জন্য এলার্জেন হিসেবে কাজ করে এবং এ কারণে সৃষ্ট উপসর্গকে কোল্ড অ্যালার্জি বলা হয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

প্রতিরোধ করুন মুখের ক্যান্সার

মাজেদা বেগমের মনটা খারাপ। মৃত্যুভয় তাকে তাড়া করছে। মুখের ঘাকে কেন যে গুরুত্ব দেননি সময়মত! যখন চিকিত্সকের শরণাপন্ন হলেন তখন সময় অনেক গড়িয়ে গেছে। ডাক্তার বলেছেন, এটি কোনো সাধারণ ঘা নয়। ক্যান্সার হয়ে গেছে। তাও এতো বড় আকার ধারণ করেছে যে, অপারেশনের অবস্থায় আর নেই। মুখের হা ছোট হয়ে গেছে, গলার কিছু গ্রন্থিতেও ছড়িয়ে গেছে। রেডিও থেরাপি বা কেমোথেরাপি দিয়ে আক্রান্ত স্থান ছোট করে আনতে পারলে পরে সার্জারি করা যেতেও পারে। ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ কয়েক সাইকল কেমোথেরাপি দেয়ার পরও তা আর অপারেশনের পর্যায়ে এলো না। এখন শুধু মৃত্যুর জন্য প্রহর গোনা…।

বিস্তারিত পড়ুন…

গোড়ালির অতিরিক্ত হাড় কারণ ও করণীয়

জোড়া ছাড়াও শরীরের বিভিন্ন হাড়ে অতিরিক্ত হাড় গজায়। এদের মধ্যে ক্যালকেনিয়াম (পায়ের হাড়) অন্যতম, যেখানে অতিরিক্ত হাড় গোড়ালির নিচে ও পেছনে গজায়। এ অতিরিক্ত হাড়কে ক্যালকেনিয়াম স্পার বলে। পায়ের সবচেয়ে বড় হাড় ক্যালকেনিয়াম যা দাঁড়ালে বা হাঁটলে সবচেয়ে প্রথম মাটির সংস্পর্শে আসে ও শরীরের পূর্ণ ওজন বহন করে। এর যে কোনো ক্ষুদ্র অসঙ্গতির ফলে বিভিন্ন ধরনের উপসর্গ দেখা দেয়।

বিস্তারিত পড়ুন…

ধনুষ্টংকার রোগ

টিটেনাস বিষয়ে কম বেশি আমরা সবাই বেশ সচেতন। একটু কেটে গেলেই এর ভ্যাকসিন নেয়ার প্রবণতা যেন সর্বজনস্বীকৃত। কিন্তু আমরা কি জানি বিভিন্ন দুর্ঘটনা থেকে জীবনঘাতী এমন রোগের সৃষ্টি হতে পারে? যেমন- 

  • ত্বকে ঘর্ষণজনিত ক্ষত থেকে
  • মানুষের কামড় বা জীবজন্তুর দংশনে
  • দূষিত যন্ত্র দিয়ে অস্ত্রোপচার করলে
  • মায়ের জরায়ুতে ভ্রƒণের মৃত্যু হলে
  • হাড় ভেঙে চর্মভেদ করে বেরোলে
  • দূষিত সিরিঞ্জ দিয়ে ইনজেকশন নিলে
  • ত্বকে দীর্ঘ দিনের কিংবা দুর্গন্ধজনিত ঘা থাকলে
  • প্রসবকালীন দূষিত উপায়ে নাড়ি কাটলে অথবা ছাই, মাটি ইত্যাদি দিয়ে নাভি আবৃত করলে।

বিস্তারিত পড়ুন…

গেঁটেবাত উপশমে ইউরিক এসিড নিয়ন্ত্রণ

গেঁটেবাত উপশমে ইউরিক এসিড নিয়ন্ত্রণঅপুষ্টির পাশাপাশি অতিপুষ্টির কারণেও শরীরে রোগের সৃষ্টি হয়। কোনো একটি অত্যাবশ্যকীয় খাদ্য উপাদান খুব বেশি গ্রহণের ফলে একটি নির্দিষ্ট সীমার পর সেই উপাদানটি উপকার না করে বরং দেহের ক্ষতি করতে শুরু করে। তেমনি একটি উপাদান হলো প্রোটিন। অতিরিক্ত মাংসাশী যারা, অর্থাৎ যারা প্রথম শ্রেণীর প্রোটিন বা রিচ ফুড বেশি খান, অতিরিক্ত প্রোটিন তাদের শরীরে কিছু বিষাক্ত উপাদানের পরিমাণ বাড়িয়ে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

বিস্তারিত পড়ুন…

মরিচের ঝালের ৫টি অজানা উপকারিতা

খেতে বসে খাবারের সাথে একটি মরিচ না নিলে অনেকের খাওয়াই অসম্পূর্ণ থেকে যায়। খাবারে ঝালের মাত্রা বেশি হলে খেতে পছন্দ করেন অনেকেই। ঝাল-প্রেমী সবারই অভিমত খাবারে একটু-আধটু ঝাল না থাকলে কিছু খাবারের স্বাদই নাকি বোঝা যায় না। এমনকি যারা ঝাল পছন্দ করেন না, তারাও ফুচকা কিংবা চটপটিতে ঝাল খেতে পছন্দ করেন, বাইরে কোথাও খেতে গেলে মুরগির ঝাল ফ্রাই খোঁজেন। সত্যিই কিছু কিছু খাবারের স্বাদই ঝালের মাত্রায়।

বিস্তারিত পড়ুন…

সুখী পরিবার সৃষ্টিতে স্বামী-স্ত্রী দুজনের অবদান সমান গুরুত্বপূর্ণ

সুখী পরিবার সৃষ্টিতে স্বামী-স্ত্রী দুজনের অবদান সমান গুরুত্বপূর্ণবিয়ের পর যে জীবন শুরু হয় সেটাকেই দাম্পত্য জীবন বলা হয়। সংসারে বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে প্রায় সময় কলহের সৃষ্টি হয়। আর এর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধুর সম্পর্কে ফাটল ধরে। কখনও কখনও কলহের জের ধরে সংসার ভাঙনের সুরও বেজে ওঠে। ভালোবাসার মানুষটির কাছে আমরা হয়তো অজান্তেই অনেক কিছু প্রত্যাশা করে ফেলি। কিন্তু তারা হয়তো আমাদের এই প্রত্যাশার খবরই রাখেন না। পরে আশাহত হয়ে আমরা তাদেরকেই দোষ দিয়ে থাকি। এটা না করে যদি আমরা নিজের প্রত্যাশা একটু সীমাবদ্ধ রাখি তাহলে ভুল বোঝাবুঝির মাত্রা অনেকখানিই কমে যাবে। অহেতুক একে অপরের ওপর দোষ চাপাবেন না।

বিস্তারিত পড়ুন…

নিখুঁত সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার ৭টি আয়ুর্বেদিক উপায়

beauty-skinপ্রাচীনকালে এত ধরনের প্রসাধন সামগ্রী কিংবা সৌন্দর্যবর্ধক ক্রিম বা লোশন ইত্যাদি কিছুই কিন্তু ছিল না। কিন্তু তারপরেও তারা ছিলেন প্রাকৃতিক ভাবেই সুন্দর। লক্ষ্য করলে দেখবেন যে কারো সৌন্দর্যের উপমা দেয়ার সময় প্রাচীনকালের দেবীদের সাথে তুলনা করা হয় এখনো। প্রশ্নটা হচ্ছে, কী ছিল প্রাচীন সময়ে ত্বক চর্চার গোপন রহস্য?

প্রাচীনকালের ছিল আয়ুর্বেদিক পদ্ধতি যা ত্বককে প্রাকৃতিক ভাবে করে তুলতো সুন্দর ও ঝলমলে। কোনো ধরনের ক্ষতিকর পদার্থ ব্যবহার করা হতো না রূপচর্চায়। সেই সব আয়ুর্বেদিক পদ্ধতির চর্চা এখনো রয়েছে। দরকার শুধু আপনার সুনজর ও একটুখানি সময়। আপনিও এইসব আয়ুর্বেদিক পদ্ধতি ব্যবহার করে ত্বককে প্রাকৃতিক ভাবে সুন্দর করে তুলতে পারবেন।

বিস্তারিত পড়ুন…