সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে ব্যায়াম

হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে ব্যায়ামকিছু কিছু কথা আছে যে বিষয় দৈনিক বলা হয়, সবাই জানেন কিন্তু তারপরও অনেকেই তেমন গুরুত্ব দেন না। এরকম একটি বিষয় হলো ব্যায়াম। দৈনিক ব্যায়ামের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে যে কেউ এ বিষয়ে সুন্দর কথা বলতে পারবেন। এর গুরুত্বের ওপর চমত্কার করে বুঝিয়ে দিতে পারবেন। কিন্তু নিজে এই দৈনিক ব্যায়াম করেন না।

সুস্থ থাকার জন্য ব্যায়াম প্রয়োজন, একই সঙ্গে অসুস্থ অবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যও ব্যায়ামের প্রয়োজন। হৃিপণ্ড ভালো রাখার জন্য ব্যায়ামের প্রয়োজন, একই সঙ্গে হৃদরোগে আক্রান্ত হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখার জন্য ব্যায়ামের প্রয়োজন।

১৯৯১ সালে অল ইন্ডিয়া কার্ডিওলজি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা ও ৪ বছর এশিয়া প্যাসিফিস কার্ডিওলজি সোসাইটির ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করা কলকাতার হাসপাতাল বিএম বিল্লাহ হার্ট রিসার্চ সেন্টারের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. কেকে হায়দার সিদ্দিক ব্যায়ামের প্রয়োজনীয়তার কথা বলতে গিয়ে প্রথমেই বললেন, ব্যায়াম না করার মানে হলো ঝুঁকি বেড়ে যাওয়া। মোবাইল ফোন, টেলিভিশনসহ আধুনিক জীবনের অনেক উপাচার বর্তমানকালের মানুষদের এমনিতেই অলস করে তুলেছে। এছাড়া তাদের খাদ্যের ক্ষেত্রে এসেছে ঝুঁকিপূর্ণ খাবার গ্রহণ অর্থাত্ অত্যধিক তেলযুক্ত খাবার গ্রহণের প্রবণতা। আর অবস্থায় ব্যায়াম না করা হলে স্বাভাবিকভাবেই মানুষের স্বাস্থ্যের প্রতি ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।
ব্যায়াম সকালে করা ভালো বলে একটা কথা ব্যাপকভাবে প্রচলিত আছে। ডা. কেকে হায়দার সিদ্দিক সে কথার স্পষ্ট ভাষায় বিরোধিতা করেন।

কিন্তু কেন? কারণ রাতে ঘুমানোর পর সকালে দেহে ক্যাটাকুলামাইন নামের একটি হরমোনের পরিমাণ বেড়ে যায়। সে কারণে এ সময় রক্তচাপের পরিমাণও বৃদ্ধি পায়। তা কখনও কখনও ৫০ ভাগ বেড়ে যায়। সকালে ব্যায়াম করলে তার কুপ্রভাব যে দেহে পড়ে সে ব্যাপারে আধুনিক বিশ্ব ওয়াকিবহাল। যুক্তরাষ্ট্রে অলিম্পিক চারটি স্বর্ণ বিজয়ী জো ফ্লোলো নামের একজন মহিলা ক্রীড়াবিদ সকালে জগিং করতে গিয়ে অকস্মাত্ মৃত্যুবরণ করার মধ্য দিয়ে। ময়নাতদন্তে ধরা পরে তা হৃিপণ্ডের তিনটা রক্তনালীই ব্লক ছিল। তিনি নামাজের কথা তুলে ধরেন। বলেন, সকালে মাত্র চার রাকাত নামাজের কথা বলা হয়েছে।

নবী করিম (সা.) এই নামাজের কথা এমন সময় বলেছেন যখন পৃথিবী গোল-চ্যাপ্টা সে বিষয়ও মানুষ কিছুই জানত না। অর্থাত্ তিনি বেশি নামাজ পড়ে যেন মুসল্লির দেহের ওপর চাপ সৃষ্টি না হয় সেটা তিনি জানতেন। এ জন্যই সকালে দিনের অন্য সময়ের থেকে নামাজ হ্রাস করা হয়েছে। সকালে ব্যায়াম স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হলে হুজুরে পাক (সা.) সকালে একশ’ রাকাত নামাজের কথা বলতেন। ডা. কেকে হায়দার সিদ্দিক আরও বলেন, কাজেই ব্যায়াম করতে হবে বিকালে। হৃদরোগ যার আছে তাকে এই ব্যায়াম মানে আধঘণ্টা হাঁটতে হবে।

এছাড়া আর কিছু করার দরকার নেই। বিকালে ৩০ মিনিটি থেকে ৪৫ মিনিট হাঁটাই শরীরের জন্য ভালো। বিকালেই মানুষ টেনিস খেলে বা সাঁতার কাটে। সকালে সাধারণভাবে টেনিস খেলে না। ৪০ বছরের পর প্রতিটি মানুষের সপ্তায় ৫ দিন হাঁটা উচিত। এ হাঁটার সময় বিকাল থেকে রাত ১১টার মধ্যে যে কোনো সময় হতে পারে বলে তিনি জানান।

বিশেষজ্ঞ ও প্রবীণ এই চিকিত্সক আরও জানান, সকালে রক্তে ক্যাটাকুলামাইনের পরিমাণ বেশি থাকে বলে সেসময় সকালের দিকে বেশিরভাগ প্যারালাইসিসের ঘটনা ঘটে। হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাও সকালে বেশি হয়। তিনি একই সঙ্গে জানান, ক্যাটাকুলামাইন এ ধরনের হরমোন। সকালে রক্তে এর পরিমাণ প্রচণ্ডভাবে বেড়ে যায়। অন্যদিকে সারাদিন কাজ করার পর রক্তে এই হরমোনের পরিমাণ স্বাভাবিক হয়ে আসে।

ডা. কেকে হায়দার সিদ্দিক আরও জানান, ৯ বছর থেকে কোলেস্টেরল জমতে শুরু করে। তিনি বলেন, ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় ৫০ হাজার মার্কিন সৈন্য নিহত হয়েছিল। তাদের সবাইকে ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। সে সময় দেখা গেছে, ৯৫ শতাংশ মার্কিন সৈন্যের দুটো করে আর্টারি ব্লক রয়েছে ও ৫ শতাংশ সৈন্য যুদ্ধে না গেলেও এমনিই হৃদরোগের কারণেই মারা পড়ত। সে সময় টনক নড়ে ও বোঝার চেষ্টা করা হয় কেন এত অল্প বয়সে আর্টারি ব্লক হচ্ছে। আর সে গবেষণা সূত্র ধরে ধরা পড়ে, ৯ বছর বয়স থেকে কোলেস্টেরল জমতে থাকে। তিনি আরও বলেন, সে জন্য রাসুল (সা.) বলেছেন, ৯ বছর বয়স থেকে নামাজ পড়। মানে ব্যায়াম কর। অর্থাত্ নিয়মিত নামাজের মাধ্যমে দেহের প্রয়োজনীয় ব্যায়াম হয়ে যাচ্ছে।