সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

মাঝবয়সে ডায়াবেটিস?

মাঝবয়সে ডায়াবেটিস ধরা পড়লে জীবনযাপনের ধরনে অনেক পরিবর্তন আনতে হয়। সুস্থ থাকার জন্য তখন চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী খাওয়া, ঘুম, শরীরচর্চা ইত্যাদি বিষয়ে সুশৃঙ্খল বিভিন্ন অভ্যাস রপ্ত করতে হয়। নিয়ন্ত্রিত জীবন কাটাতে পারলে ডায়াবেটিস নিয়েও ভালো থাকা যায়।

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের বাল্টিমোরে অবস্থিত জন হপকিন্স ব্লুমবার্গ স্কুল অব পাবলিক হেলথের একদল বিশেষজ্ঞ বলছেন, মাঝবয়সীরা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলে পরবর্তী ২০ বছরে তাদের বোধ-বুদ্ধি কমতে থাকে। প্রতিষ্ঠানটির মহামারিবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এলিজাবেথ সেলভিনের নেতৃত্বে নতুন এক গবেষণার ভিত্তিতে এ তথ্য পাওয়া যায়। গবেষণাটি অ্যালায়েন্স অব ইন্টারনাল মেডিসিন সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। এতে ১৫ হাজার ৭৯২ জন মধ্যবয়সী ব্যক্তির ওপর ১৯৮৭ সাল থেকে সংগৃহীত তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করা হয়।

জন হপকিন্স স্কুলের ওই বিশেষজ্ঞরা গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের বোধ-বুদ্ধি হ্রাস পাওয়া এবং সাধারণ মানুষের বয়সজনিত কারণে বোধ-বুদ্ধি হ্রাস পাওয়ার মধ্যে তুলনা করেন। এতে দেখা যায়, যাঁরা ঠিকমতো ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে পারেননি তাঁদের বোধ-বুদ্ধি কমে যাওয়ার হার একই বয়সী ডায়াবেটিসমুক্ত ব্যক্তিদের চেয়ে ১৯ শতাংশ বেশি। বোধ-বুদ্ধি হ্রাস বলতে স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া, শব্দ মনে রাখার ক্ষমতা এবং মাথা খাটানোর সামর্থ্য ইত্যাদিকে বোঝায়।

গবেষকেরা বলেন, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পিছিয়ে থাকা ব্যক্তিদের বোধ-বুদ্ধি সমবয়সী সুস্থদের চেয়ে পাঁচ বছর দ্রুত কমে যেতে পারে। নিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস এবং প্রাক-ডায়াবেটিস (রক্তে শর্করার মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি) থাকলেও বোধশক্তি অকালে হারিয়ে যেতে পারে। এ সমস্যার সমাধান অবশ্যই আছে। ৭০ বছর বয়স পর্যন্ত মস্তিষ্কের সুষ্ঠু কার্যকারিতা বা সুস্থতা অটুট রাখতে চাইলে ৫০ বছর বয়স থেকেই পরিমিত খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

সেলভিন বলেন, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য নিয়মিত শরীরচর্চা, ওজন নিয়ন্ত্রণ ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস বজায় রাখার সমন্বিত অভ্যাস গড়ে তোলার গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। যদি ৭০ বছর বয়সে পৌঁছানোর পরও স্বাভাবিক বোধশক্তি ধরে রাখতে চান, ৫০ বছর বয়স থেকেই সঠিক খাওয়া-দাওয়া ও শারীরিক ব্যায়াম করতে হবে।

সেলভিন বলেন, ডায়াবেটিস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের জন্য বেশি বেশি সচেতন ও সক্রিয় হওয়ার মধ্য দিয়ে মানুষের মধ্যে ডিমেনশিয়া রোগ প্রতিরোধ করা যাবে। এমনকি রোগটি যদি কয়েক বছর পিছিয়ে দেওয়া যায়, জনস্বাস্থ্য, জীবনযাত্রার মান ও স্বাস্থ্যসেবা ব্যয়ের ওপর বড় প্রভাব পড়বে।