সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

ডাবের পানির ঔষধি গুণ

ডাবনারকেল গাছের কাদিতে ঝুলে থাকে ডাব। আর এ ডাব থেকে পাই আমরা অতি সুপেয় ডাবের পানি। ডাব বড় হয়ে পরিপকস্ফ হলে হয় নারকেল। নারকেল থেকে আমরা পাই নারকেলের শাঁস ও নারকেলের ছোবড়া। নারকেলের শাঁস বা কোষ থেকে হয় নারকেল তেল, যা মানব চুল ও শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। নারকেল তেল চুল বা কালো কেশের জন্য অত্যন্ত উপকারী ও প্রয়োজনীয়। তদ্রূপ ডাবের পানি আমাদের শরীরের জন্য বিশেষ প্রয়োজন।

ডাবের পানি দৈনিক ২ থেকে ৩ গ্লাস খাওয়া উচিত। গরমের দিনে একবার ডাবের পানি পান করলে শরীরের কষা ও পানিশূন্যতা থেকে মুক্ত থাকা যায়। ডাবে পানি আমাদের তৃঞ্চা মিটায়, কিছু কিছু ক্ষেত্রে রোগের প্রতিরোধক ও প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। ডাবের পানি কিডনির পাথর সৃষ্টি রোধ করে। বিশেষ করে ডায়রিয়া, আলসার, গ্যাসটাটাইটিস বা অ্যাসিডিটি, Urinary Infection, Urolithiasis, Urinary tract Infection প্রতিরোধ করে।

ডাবের পানিতে Antiseptic গুণাগুণ থাকাতে কাটা-ছেড়া জায়গায় ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। মুখের ক্ষত যেমন—বরণ, মেছতা ও পক্সের ক্ষত ডাবের পানি দিয়ে ধৌত করলে ভালো ফল পাওয়া যায় ও আমরা ডাবের পানির ভালো গুণাগুণ না জেনেও এমনিতে এসব রোগের জন্য ডাবের পানি ব্যবহার করি।

ডাবের পানিতে ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন সি, রিবোফ্লেভিন ও কার্বোহাইড্রেট আছে। ডাবের পানিতে বিশেষ করে স্যালাইন গুণাগুণ থাকে। তাই অধিক Sweating বা ঘাম থেকে শরীরের ডিহাইড্রেশন রক্ষার জন্য ডাবের পানি পান করা হয়। প্রাণীর ক্ষেত্রে Babesiasis বা রক্ত প্রস্রাব বা Blood Parasite জনিত রোগে ডাবের পানি খাওয়ালে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়, বিশেষ করে গাভী, ষাঁড় ও ছোট বাছুরের ক্ষেত্রে।

ডাবের পানির সবচেয়ে ভালো দিক হলো—এটা ৯৯ শতাংশ চর্বি বা কোলস্টেরলমুক্ত ও বিশুদ্ধ। নারকেলের ভেতরের শাঁসের চেয়ে পানি অনেক বেশি পুষ্টি ও স্বাস্থ্যকর। ডাবের পানিতে মৃদু জোলাপের (Purgative) গুণাগুণ বিদ্যমান থাকায় শরীরের কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। তাই নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে মানুষের শরীর সুস্থসহ বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্ত থাকা যায়।