সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

জিমে না গিয়েই ওজন কমান

সাধারণত যখন আমরা প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ক্যালরির খাবার নিয়মিত গ্রহণ করি, তখন আমাদের ওজন বৃ্দ্ধি পায়। ওজন কমানোর উপায় হচ্ছে কম ক্যালরির খাবার গ্রহণ করা এবং শারিরিক কাজের মাধ্যমে অতিরিক্ত ক্যালরি খরচ করা।

শুনতে এটা খুবই সাধারণ ব্যাপার মনে হয়। কিন্তু, ৬০ শতাংশেরও বেশি প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ স্থূলকায় বা তাদের ওজন স্বাভাবিকের চাইতে বেশি। এর কারণ আমরা খুব কমই শারিরিক পরিশ্রম করি। আসুন জেনে নিই জিমনেশিয়ামে না গিয়েই অতিরিক্ত ক্যালোরি খরচ বা ওজন কমানো কিছু উপায়।

১. প্রাণ খুলে হাসুন
হাসি সবচেয়ে ভালো ওষুধই নয়। এটি অতিরিক্ত ক্যালোরি খরচের পরিশ্রমহীন উপায়। মাত্র ১৫ মিনিট হাসিতে ১০ থেকে ৪০ ক্যালোরি খরচ হতে পারে। হাসির ফলে সেরোটোনিন নামে এক ধরনের হরমোন নি:সরিত হয়। যা আপনার ক্ষুধা কমিয়ে দেবে।

২. নাচুন
নাচ ক্যালোরি খরচের ক্ষেত্রে অত্যন্ত সুন্দর একটি উপায় হতে পারে। বিশেষ করে বেলি ড্যান্স। ঘন্টাখানেক নাচে চারশ থেকে ছয়শ ক্যালোরি খরচ হতে পারে। এক্ষেত্রে ঘরে বসেই আপনার রুমে কিছুক্ষণ নাচের অনুশীলন করতে পারেন।

৩. সহবাস
স্ত্রী সহবাস হতে পারে ক্যালোরি খরচের অন্যতম উপায়। মাত্র আধাঘণ্টা সহবাসে ১৬০ ক্যালোরি খরচ হতে পারে। তাছাড়া আধা ঘণ্টা ফোর-প্লে’র মাধ্যমে খরচ হতে পারে আরো ৫৫ ক্যালোরি।

৪. কেনাকাটা
আশ্চর্য হলেন? না আশ্চর্য হবেন না। এক ঘণ্টা শপিং বা কেনাকাটায় আপনি খরচ করতে পারেন ১৮০ ক্যালোরি। আর যদি মুদি দোকানের কেনাকাটা করে ভারী বোঝা বহন করেন তাহলে খরচ হতে পারে ২৬০ ক্যালরি। তবে খেয়াল রাখবেন, কেনাকাটার সময় খাওয়া-দাওয়া করা যাবে না কিন্তু।

৫. দাঁড়িয়ে কাজ করা
যাদের ওজন বেড়ে গেছে তারা কর্মক্ষেত্রে দাঁড়িয়ে কাজ করতে পারেন। এটা প্রতি মিনিটে দুই বা তারও বেশি ক্যালোরি খরচ করতে পারে। আর এভাবে কাজ করলে এক বছরে আপনার ওজন কমতে পারে ১৬ থেকে ২০ পাউন্ড।
অফিসে মাঝে মাঝে হেঁটে আসুন। ব্যায়াম বিশেষজ্ঞ মিরা রাসমুসেনের মতে, আপনি যদি অফিসে আসতে সপ্তাহে মাত্র দুই ঘণ্টা পরিমাণ হাঁটেন তবে বছরে ১০ পাউন্ড ওজন কমতে পারে আপনার।

৬. গান গাওয়া
একা একা গান গাওয়ার অভ্যাস অনেকেরই আছে। ব্যাপারটা কিন্তু খারাপ না। গান শোনার সাথে সাথে আপনিও গাইতে থাকুন। নিজের ব্যক্তিগত গাড়ি কিংবা বাথরুমেও গাইতে পারেন। এভাবে আপনার খরচ হতে পারে ১৩৬ ক্যালোরি পর্যন্ত। সুতরাং আর দেরি কেন? কণ্ঠ ছাড়ুন জোরে……

৭. রান্না-বান্না
অনেকেই রান্নাকে ঝামেলা মনে করেন। তবে রান্নার কাজে মাত্র আধা ঘণ্টা সময় দিলে তা বার্ন করতে পারে প্রায় ১০০ ক্যালোরি।

৮. হিমশীতল পরিবেশ
অফিসে সেন্ট্রাল এসির হিমশীতল পরিবেশ অনেকেই পছন্দ করেন না। তবে এটা কিন্তু উপকারী! সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গেছে এই পরিবেশ আপনার ওজন বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। সামান্য ঠাণ্ডায় প্রতি ঘণ্টায় আপনার ১০ ক্যালোরি বার্ন হতে পারে।

৯. ধোয়া-মোছা
আপনার ঘর নিজেই পরিষ্কার হয়ে যাবে না। সেজন্য আপনাকে সময় তো দিতেই হবে। আর সে সময়টা দিয়ে যদি হয় ব্যায়ামের কাজ, তাহলে সমস্যা কী? ঘরবাড়ি, কাপড়-চোপড় বা ঘরের বিভিন্ন জিনিস ধোয়া-মোছা করে খরচ করতে পারেন কিছু বাড়তি ক্যালোরি। আধা ঘণ্টা ধোয়া-মোছা করে গড়ে একজন পুরুষ ১১০ ক্যালোরি খরচ করতে পারে। আর নারীদের ক্ষেত্রে তা প্রায় ৯৫ ক্যালোরি।

১০. মাথার কাজ
সুডোকু, ক্রসওয়ার্ড পাজলের মতো বিভিন্ন মাথা খাটানো খেলায় আপনার বাড়তি ক্যালোরি খরচ করতে পারেন। আপনি যখন এ ধরনের খেলায় মাথা খাটাবেন তখন প্রতি মিনিটে প্রায় ১.৫ ক্যালোরি পর্যন্ত খরচ হতে পারে।

Category: ওজন