সুস্থ থাকার উপায়

বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

সুস্থ থাকার উপায় - বিভিন্ন দৈনিক সংবাদপত্র থেকে নেয়া চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু লেখা…

কোলেস্টেরল কমাতে—ব্যায়াম করুন, ধীরে সুস্থে খাবার খান

ক্যারিয়ার নিয়ে প্রতিযোগিতার এই দৌড়ে বর্তমান তরুণ প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা খাবারের দিকে একেবারেই ভ্রূক্ষেপ করছে না। পড়াশোনার জন্য তারা কখনও ক্লাসে যোগ দিতে রুদ্ধশ্বাসে ছোটে। আবার কখনও কোচিং ক্লাসটা যাতে মিস না হয়ে যায় সেই চিন্তায় অস্থির। সামনের খাবারের প্লেটটা ছেড়েই উঠে যায়।

নতুবা যখন খাবার খায় এমন তড়িঘড়ি করে খায়, যা সুস্থ থাকার জন্য যথোপযুক্ত নয়। ফলে বেশিরভাগই নানা শারীরিক সমস্যায় ভোগে। কারও মাথাব্যথা, কারও পেটব্যথা প্রভৃতি। আসলে ছাত্রছাত্রীরা জীবনে সফলতা লাভের আশায় কঠিন পরিশ্রম করে। কিন্তু এই পরিশ্রমটার জন্য এনার্জি দরকার। তার জন্য সঠিকভাবে খাবার খেতে হবে। খাবার খাওয়ার জন্য অন্তত দু’বেলা আধাঘণ্টা সময় বরাদ্দ রাখতে হবে, যা তাদের ফিটনেসটাও বাড়াবে। এর সঙ্গে এনার্জিটাও শরীরে জোগাবে।

এবার চলুন খাবার সেই পদ্ধতিটা জেনে নিই, যা পালন করলে আপনি সহজেই সুস্থ থাকতে পারবেন।
— প্রতিদিন খাওয়ার আগে গভীরভাবে শ্বাস নিন।
— প্রতিবার খাওয়ার আগে অন্তত এক গ্লাস পানি পান করুন।
— খাওয়ার আগে গভীরভাবে শ্বাস নিন
— দুপুর বা রাতের খাবারের জন্য অন্তত ২০ মিনিট সময় বরাদ্দ করুন।
— ভালো করে চিবিয়ে খান ও ধীরে ধীরে খান। এতে কম খেলেও আপনার পেট ভরে যাবে।
— মুখে খাওয়ার নিয়ে কোনো কথা বলবেন না। তবে খাওয়ার সময় গল্প করতে পারেন। তাতে আপনি ধীরে ধীরে খেতে পারবেন।
— যদি আপনি একা খান তো খাওয়ার সময় বই পড়ুন নইলে রুচিসম্মত কোনো গান শুনুন।
— যদি খুব খিদে পেয়ে যায় তাহলে প্রথমে হালকা কিছু খেয়ে নিন। এতে আপনি একবারে বেশি খাওয়ার প্রবণতা থেকে রক্ষা পাবেন।
— রাতে খাওয়ার সময় টিভি দেখবেন না।
— কখনও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে খাওয়ার খাবেন না।